1. samiullah4324@gmail.com : khoborerdakghar com : khoborerdakghar com
  2. khoborerdakghar@gmail.com : Samia Sami : Samia Sami
  3. mdsamiullahsami1@gmail.com : Samiullah Sami : Samiullah Sami
শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ১২:২৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
রাজনগর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আছকির খানের ইন্তেকাল লক্ষীপুর রায়পুরে অস্ত্রসহ ৭ জলদস্যু আটক পাটগ্রামে বাবা দ্বিতীয় বিয়ে করায় অভিমান করে মেয়ের আত্নহত্যা! কচুয়ায় ফ্রী মেডিকেল ক্যাম্প রহনপুরে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের নিয়ে বিজ্ঞান আড্ডা অনুষ্ঠিত আত্রাই প্রেসক্লাবে সাথে ইউএনও-ওসির মতবিনিময় নওগাঁর সাপাহারে আ’লীগের যৌথ বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত ভান্ডারিয়ায় ইউনিটি ব্লাড ব্যাংক ফাউন্ডেশনে এর ৪১ জন নতুন কমিটি ঘোষনা সিলেটে দুই বাসের সংঘর্ষে নিহত ১১ সুন্দরগঞ্জে বিভিন্ন মামলার ১৪ আসামি গ্রেফতার জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ে একসঙ্গে কাজ করবে বাংলাদেশ-ইংল্যান্ড সুনিদির্ষ্ট সময়ের আগেই ৭৫নং প্রকল্পের কাজ শেষ জামালপুরে মাদক ব্যবসায়ী স্বামী-স্ত্রীকে কারাদন্ড হাতীবান্ধায় ওড়না পেচিয়ে ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রীর আত্মহত্যা লালমনিরহাটে স্ত্রী কর্তৃক স্বামীর লিংঙ্গ কর্তন: হাসপাতালে কাতরাচ্ছে স্বামী! নবীনগরে ভাগিনার সম্পত্তি দখল করে মার্কেট নির্মাণ কুয়েতে সড়ক দুর্ঘটনায় এক ইরানি নিহত আহত ১ মিজানুর মাওলা জাহিদের কবিতা ‘বাঁচার অপেক্ষায়’ দৈনিক স্বদেশের খবর নিয়োগ পেলেন সাংবাদিক নয়ন দাস মৌলভীবাজারে ওয়ান স্টপ সার্ভিস সেন্টার থেকে ২ হাজারের বেশি গ্রাহকসেবা প্রদান কুলাউড়ায় ছাত্র ইউনিয়নের সম্মেলন সম্পন্ন : সভাপতি সামিন ও সম্পাদক রাব্বি শপথ নিলেন রহনপুর পৌর মেয়র মতি খাঁন সাংবাদিক বোরহান এর খুনীদের গ্রেফতারের দাবীতে নওগাঁয় মানববন্ধন! নওগাঁয় সড়ক দুর্ঘটনায় মোটরসাইকেল আরোহীর মৃত্যু ব্যাংক কর্মকর্তা মওদুদ হত্যার প্রতিবাদে মৌলভীবাজারে মানববন্ধন সুন্দরগঞ্জে এ আই টি ফিড মিলের খামারীদের সাথে মতবিনিময় খুলনায় জেসকো কাবাবকে মোবাইল কোর্টের জরিমানা সাংবাদিক মুজাক্কিরকে হত্যার প্রতিবাদে হাতীবান্ধায় মানববন্ধন ভূমি অফিস পরিচ্ছন্ন করলেন লালমনিরহাটের এডিসি তাহিরপুরে আগুনে পুড়ে প্রতিবন্ধীর দোকান ছাইঁ জামালপুরে পৌর নির্বাচন নিয়ে জেলা আওয়ামী লীগের সংবাদ সম্মেলন মৌলভীবাজার জেলায় ৫৫৯ টি বিদ্যালয়ে নেই শহীদ মিনার কমলগঞ্জে ভোক্তা অধিকার অধিদপ্তরের অভিযানে ৩৯ হাজার টাকা জরিমানা ব্রোকলি চাষ করে যেভাবে সফল হলেন কুলাউড়ার ইয়াছমিন কুষ্টিয়ার মিরপুরে মাকে হত্যার দায়ে ছেলেসহ তিনজন আটক কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতালকে আন্তর্জাতিক মানে রূপান্তরিত করা হচ্ছে পাটগ্রাম সীমান্তে ভারতীয় পুলিশের হাতে বাংলাদেশি যুবক আটক শপথ নিলেন রহনপুর পৌর মেয়র মতি খাঁন গোমস্তাপুরে খাঁড়ি থেকে নবজাতক উদ্ধার বিটিএর শহীদ দিবস পালন

আজ ভয়াল ১৩ সেপ্টেম্বর : সাপাহারকে মুক্ত করতে ২১ বীর মুক্তিসেনা প্রান বিসর্জন দিয়েছিল

  • Update Time : 8:53 am, Sun, 13 September 20

নাদিম আহমেদ অনিক,স্টাফ রিপোর্টার : ৫০ বছর কেটে গেলো। তারপরেও সৃতির পাতায় মৌলিন হয়েই রইল ১৯৭১ এর আজকের এই দিনটি। নওগাঁর সাপাহার উপজেলার স্বাধীনতাকামী মানুষদের কাঁদাতে ও ১৯৭১ এর ১৩ সেপ্টেম্বরের সেই বিভৎস রুপ স্মরন করে দিতে স্বাধীনতার এতোগুলো বছর পর আবারো ফিরে এলো সেই ভয়াল ১৩ সেপ্টেম্বর।

ইতিহাস বলে, ১৯৭১ সালের আজকের এই দিনে এলাকার বীর মুক্তিযোদ্ধার একটি সস্ত্র দল জেলার সাপাহারবাসীকে শত্রু মুক্ত করতে গিয়ে এক রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে লিপ্ত হয় এবং সে যুদ্ধে ২১জন বীর সেনা হাসিমুখে তাদের তাজা প্রাণ বিসর্জন দিয়েছিলেন, আহত হয়েছিলেন অনেকেই। তাই সে দিনটি সাপাহারবাসীর জন্য ইতিহাসে ভয়াল দিন হিসেবে আজও পরিচিত। প্রতিবছর এই দিনটি স্মরন করে অনেক সন্তান হারা মা, ভাই হারা বোন ও প্রিয় মানুষকে হারানো স্বজনরা তাদের চোখের পানিতে।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী সে দিনের যুদ্ধে অংশগ্রহনকারী ভাগ্যক্রমে বেঁচে যাওয়া যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা এসএম জাহিদুল ইসলাম, মনছুর আলী, আঃ রাজ্জাক সহ একাধীক মুক্তিযোদ্ধা ও এলাকার কিছু প্রবীন ব্যক্তিদের থেকে অনুসন্ধান করে জানা যায়, দেশে মুক্তিযুদ্ধ শুরু হওয়ার সাথে সাথে পাকহানাদার বাহিনী ও তার দোসররা সাপাহার সদরের পূর্বদিকে একটি পুকুর পাড় ও পাড় সংলগ্ন স্কুলে (বর্তমানে ঐতিহ্যবাহী পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়) একটি শক্তিশালী ক্যাম্প স্থাপন করে এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করে। এখান থেকেই তারা এলাকার বিভিন্ন গ্রামে গিয়ে অসহায় মা-বোনদের সম্ভ্রমহানী নিরহী লোকদের ব্রাশফায়ার ও বাড়ী ঘরে অগ্নি সংযোগ করে থাকত। দেশের এই প্রতিকূল অবস্থায় বর্বর হানাদার বাহিনীর কবল থেকে সাপাহারবাসীকে মুক্ত করার জন্য সাপাহার ও মহাদেবপুর এলাকার ৮০ জন মুক্তিযোদ্ধা দৃঢ় প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হয়ে তৎকালীন পাকহানাদার বাহিনীর লেঃ শওকত আলীর অধীন সাপাহারের ওই শক্তিশালী ক্যাম্পটিকে উৎখাত করার জন্য ১৩ সেপ্টেম্বর রাতে আক্রমন চালানের সিদ্ধান্ত গ্রহন করেন। সিদ্ধান্ত মোতাবেক ওই দিন রাতে মুক্তিযোদ্ধা মেজর রাজবীর সিং এর আদেশক্রমে ও ইপিআর হাবিলদার আহম্মদ উল্লাহর নেতেৃত্বে ৮০ জন মুক্তিযোদ্ধার সংঘটিত দলটিকে ৩টি উপদলে বিভক্ত করে একটি দলকে সাপাহার-পত্নীতলা রাস্তার মধইল ব্রিজে মাইন বসানোর কাজে নিয়োজিত করা হয়, যাতে পতœীতলা হতে শত্রু সেনারা সাপাহারে প্রবেশ করতে না পারে। অন্য একটি দলকে নিয়োজিত করা হয় সার্বক্ষনিক টহল কাজে। আর মূল দলটি অবস্থান নেয় শত্রু শিবিরের একেবারে কাছাকাছি একটি ধানক্ষেতে। কিন্তু হাজারো সতর্কতার জাল ভেদ করে মোনাফেক রাজাকার আলবদর মারফত মুক্তিযোদ্ধাদের আক্রমনের খবর পৌঁছে যায় শত্রু শিবিরে। তাৎক্ষনিক ভাবে পাকসেনারও যুদ্ধের প্রস্তুতি নিতে থাকে। চলতে থাকে উভয় পক্ষের মধ্যে যুদ্ধের নানা পরিকল্পনা। অবশেষে শেষ রাতের দিকে ধানক্ষেতে অবস্থান নেয়া মুক্তিযোদ্ধাদের অস্ত্র গর্জে ওঠার সাথে সাথে বেজে ওঠে যুদ্ধের দামামা। শুরু হয় উভয় পক্ষের মধ্যে তুমুুল লড়াই। লড়ায়ের একপর্যায়ে বীর মুক্তিযোদ্ধার দলটি যখন শত্রু সেনাদের প্রায় কোন ঠাসা করে ফেলেছিল ঠিক এমনি অবস্থায় ভোরের আভাস পেয়ে ব্রীজে মাইন বসানোর দলটি সেখান থেকে সরে পড়লে তার কিছুক্ষন পরই পত্নীতলা হতে অসংখ্য শত্রু সেনা আরোও ভারী অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে সাপাহারে প্রবেশ করে। এর পর শত্রুপক্ষের অত্যাধুনিক ভারী অস্ত্রের মুখে হিমশিম খেয়ে এক সময় বাধ্য হয়ে পিছু হটতে হয় মুক্তিযোদ্ধাদের।

এ সময় শত্রুপক্ষের গুলির আঘাতে বীর মুক্তিযোদ্ধা লুৎফর রহমান, আইয়ুব আলী, আব্দুল হামিদসহ ১৫জন ঘটনাস্থলেই শাহাদাতবরন করেন। আহত হন মনছুর আলী, এসএম জাহিদুল ইসলাম, দলনেতা আহমদ উল্লাহ, সোহরাব আলী, নুরুল ইসলাম সহ অনেকে। এছাড়া শত্রুদের হাতে জীবিত ধরা পড়েন ৮জন মুক্তিযোদ্ধা। শত্রুরা আটক ৮ জনের মধ্যে ৪ জনকে পতœীতলার মধইল স্কুলের ছাদে তুলে কুপিয়ে হত্য করে লাশগুলি লাথি মেরে নিচে ফেলে দেয়। ২ জন কে ধরে এনে মহাদেবপুরের একটি কূপে ফেলে দিয়ে জীবন্ত কবর দেয় এবং সাপাহারের তিলনা গ্রামের আবু ওয়াহেদ গেটের ও মহাদেবপুর উপজেলার জোয়ানপুর গ্রামের মৃত এসএম আবেদ আলীর পুত্র টকবগে যুবক এসএম জাহিদুল ইসলামকে ধরে এনে নাটোরের রাজবাড়ীতে তৈরীকৃত জেলখানায় বন্দি করে রাখে।

শত্রু সেনার বন্দিদশা ও সেই ভয়াল ১৩ সেপ্টম্বর এর বর্ণনা দিতে গিয়ে ভাগ্যক্রমে বেঁচে যাওয়া জেল ফেরত যুদ্ধাহত জাহিদুল ইসলাম হাউমাউ করে কেঁদে ফেললেন এবং অশ্রুসিক্ত নয়নে বললেন, মুক্তিযোদ্ধাদের বিভিন্ন আস্তানা গোপন তথ্য ও অস্ত্র ভান্ডারের খবর জানার জন্য প্রতিদিন সকালে তাদের দু’জনকে হানাদার বাহিনীর এক উর্ধ্বতন কর্মকর্তার নিকট উপস্থিত করা হত। তথ্য আদায়ে ব্যার্থ হলে কর্মকর্তার সামনেই ধারালো অস্ত্র (চাকু) দিয়ে শরীরের বিভিন্ন জায়গায় কেটে লবন মাখিয়ে দেয়া হতো। অসহ্য যন্ত্রনায় অসহায় মুক্তিযোদ্ধারা যখন ছটফট করতো শত্রুবাহিনীর সকলেই তখন আনন্দ উল্লাসে মেতে উঠত। এমনি হাজারো দুঃখ কষ্টের মাঝে থেকে সুযোগ বুঝে একদিন তারা জেলের প্রাচীর টপকে পালিয়ে এসে প্রানে বাঁচেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই রকম আরো সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক  : সামিউল্লাহ সামি। নির্বাহী সম্পাদক : মহসিন রায়হান। ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : আকরাম হোসাইন।  সহ-ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : ওমর ফারুক।  আইন উপদেষ্টা : মোঃ তৌহিদুল ইসলাম, এডভোকেট বাংলাদেশ সু্প্রিম কোর্ট ঢাকা।

প্রধান কার্যালয় : ২১৯ মাজার রোড, মিরপুর, ঢাকা-১২১৬। বার্তা ও সম্পাদকীয় কার্যালয় : আরএকে টাওয়ার (৯ম তলা), প্লট নং ১/এ,  নিশাত নগর, তুরাগ, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০। 📲 মোবাইল : ০১৭১৩৯২৬২৭৭, ০১৭১০১০১৬৯৯। বিজ্ঞাপন : ০১৭৭ ৯৭৪৬৬০৭ ☎️ ফোন : +৮৮০৯৬৩৮১৯২৪।

📧  Email : khoborerdakghar@gmail.com

“দৈনিক খবরের ডাকঘরে” প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখক/প্রতিনিধির। আমরা লেখক/প্রতিনিধির চিন্তা ও মতামতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল সব সময় নাও থাকতে পারে । তাই যে কোনো লেখার জন্য অত্র পত্রিকা দায়ী নহে। ডেইলি খবরের ডাকঘর

about-us  contact-us  privacy-policy   terms-and-conditions

সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত খবরের ডাকঘর. কম ©২০১৮ -২০২১||

Design & Development By Hostitbd.Com
error: কপি করা নিষেধ !!